একমাসে ৬৫ কোটি টাকার মাদক-চোরাই পণ্য জব্দ করেছে বিজিবি

Published: Wed, 01 Apr 2020 | Updated: Wed, 01 Apr 2020

অভিযাত্রা ডেস্ক : মার্চ মাসজুড়ে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৬৫ কোটি ৩৩ লাখ ৭ হাজার টাকা মূল্যের চোরাচালান পণ্য ও মাদক দ্রব্য জব্দ করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এছাড়া, অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ২৭ জন বাংলাদেশি ও ৬ জন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিয়েছে বাহিনীটি। বুধবার (১ এপ্রিল) বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলামের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মার্চ মাসজুড়ে বিজিবির জব্দ করা মাদকের মধ্যে রয়েছে ৯ লাখ ৩৩ হাজার ৮২ পিস ইয়াবা, ৪০ হাজার ৩১৪ বোতল ফেনসিডিল, ৯ হাজার ৬৮৫ বোতল বিদেশি মদ, ৪৬৯ লিটার বাংলা মদ, ১৩৯ ক্যান বিয়ার, ৯২৮ কেজি গাঁজা, ২৮০ গ্রাম হেরোইন, ৩ হাজার ৮০৯টি ইনজেকশন, ১৫ হাজার ২৫২টি এ্যানেগ্রা/সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ২ লাখ ৮১ হাজার ৪১৩টি অন্য ট্যাবলেট।

জব্দ করা অন্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ৪ কেজি ৪২৬ গ্রাম স্বর্ণ, ৫৮ কেজি ৪৭০ গ্রাম রুপা, ৮৬ হাজার ১২৮টি ইমিটেশন গহনা, ৬২ হাজার ১৩১টি কসমেটিক্স সামগ্রী, ২ হাজার ৬৭টি শাড়ি, ২ হাজার ৪৮৮টি থ্রিপিস/শার্টপিস, ৫ হাজার ৫৫০টি তৈরি পোশাক, ২৬৩ মিটার থান কাপড়, ২ হাজার ৮৪১ ঘনফুট কাঠ, ১৩ হাজার ৫৬৬ কেজি চা পাতা, ৭টি ট্রাক, ৩ প্রাইভেটকার, ১টি পিকআপ, ১৮টি সিএনজি/ইঞ্জিন চালিত অটোরিকশা এবং ৮৭টি মোটরসাইকেল। এদিকে, উদ্ধার করা অবৈধ অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ২টি পিস্তল, ৮টি অন্য প্রকারের অস্ত্র, ২টি ম্যাগাজিন এবং ১০ রাউন্ড গুলি।

বিজিবি জানায়, সীমান্তে মাদক ও অন্য চোরাচালানের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩৪২ জন চোরাচালানীকে আটক করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

ও/এসএ/