কোনো পাটকল বন্ধ করেনি সরকার : তথ্যমন্ত্রী

Published: Mon, 29 Jun 2020 | Updated: Mon, 29 Jun 2020

অভিযাত্রা ডেস্ক : সরকার কোনো পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়নি বরং পাটকলগুলোকে আরও ভালোভাবে চালু করার লক্ষে সংস্কারের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

সোমবার (২৯ জুন) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে পাটকল বন্ধ করা হয়েছে বিএনপি নেতা রিজভীর এমন মন্তব্যের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল, তখন আদমজী জুটমিলসহ অনেকগুলো পাটকল বন্ধ করে দিয়েছিল। ফলে আদমজী জুটমিলের ৬০ হাজার এবং অন্য পাটকলের লক্ষাধিক শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছিল।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় আসার পর এবং পরবর্তীতে ২০০৯ সালে সরকার গঠন করার পর দু’বারেই অনেকগুলো করে পাটকল চালু করা হয়েছিল এবং শ্রমিকদের পাটকলের মালিকানায় অংশীদার করা হয়েছিল।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, যেকোনো বিষয় ভালো করে পড়ে মন্তব্য করাই হচ্ছে দায়িত্বশীল বিরোধী দলীয় নেতার কাজ। যেটি তারা করতে ব্যর্থ হচ্ছেন।

তিনি বলেন, হোম আইসোলেশনে থেকে মির্জা ফখরুল সাহেব সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছেন কিন্তু জনগণের পাশে দাঁড়াচ্ছেন না। সেটি দায়িত্বশীলতার পরিচয় নয়। তাকে অনুরোধ করবো, অন্ধের মতো সমালোচনা না করে বিশ্বের দিকে তাকিয়ে বাংলাদেশের পরিস্থিতি মূল্যায়ন করার জন্য। বিশ্ব প্রেক্ষাপট দেখে, বিশ্বের অন্য দেশগুলো লক্ষ্য করে যদি তিনি বাংলাদেশের পরিস্থিতিটা মূল্যায়ন করেন, তিনি স্বীকার করতে বাধ্য হবেন যে, বাংলাদেশের পরিস্থিতি অনেক দেশের তুলনায় অনেক ভালো।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও উপকরণ অবশ্যই ইউরোপ, আমেরিকার মতো নয় এবং মনে রাখতে হবে এটি পৃথিবীর সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ দেশ। এরপরও সীমিত সামর্থ্য নিয়ে সরকার প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এই মহামারি মোকাবিলার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, সরকার যদি সামাল দিতে না পারতো, তাহলে মৃত্যুর হার অন্তত ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে বেশি হতো। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত সরকার যে ব্যবস্থা নিয়েছে তাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। ভবিষ্যতেও যেকোনো পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার লক্ষ্যে সরকার প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে।

ও/এসএ/