নৌবাহিনী কর্মকর্তা মারধর মামলার আসামী দিপু গ্রেফতার

Published: Tue, 27 Oct 2020 | Updated: Tue, 27 Oct 2020

অভিযাত্রা ডেস্ক : নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের মামলার আসামি ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের মদীনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দিপুকে (৪৫) গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে টাঙ্গাইল থেকে দিপুকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের রমনা বিভাগ।

তার আগে সোমবার (২৬ অক্টোবর) এই মামলায় গ্রেপ্তার হন—ইরফান সেলিম, তাঁর দেহরক্ষী মো. জাহিদ ও গাড়িচালক মিজানুর রহমান।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) রমনা বিভাগের উপকমিশনার এইচ এম আজিমুল হক বলেন, ‌‘আসামি এবি সিদ্দিক দিপু নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিমকে সবচেয়ে বেশি মারধর করেছেন। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন করে মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) তাকে আদালতে পাঠানো হবে’।

রোববার রাতে ধানমণ্ডি এলাকায় সংসদ সদস্যের স্টিকারযুক্ত হাজী সেলিমের একটি গাড়ি থেকে নেমে নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট মো. ওয়াসিফ আহমেদ খানকে মারধর করা হয়।  ওই গাড়িতে তখন ইরফান ছিলেন।

এরপর ওয়াসিফ মামলা করার পর সোমবার হাজী সেলিমের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ইরফান ও জাহিদকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। অন্যদিকে মিজানকে গ্রেপ্তার করে ধানমন্ডি থানা পুলিশ।
ইরফান ও জাহিদকে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত মদ্যপান ও ওয়াকিটকি ব্যবহারের অপরাধে এক বছর করে কারাদণ্ড দেয়। দুজনই এখন কেরানীগঞ্জের কারাগারে রয়েছেন।

ইরফান ও জাহিদের বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র ও মাদক রাখার অভিযোগে দুটি মামলাও করবে র‌্যাব।

ওয়াসিফের মামলায় বেআইনিভাবে পথরোধ করে সরকারি কর্মকর্তাকে মারধর, জখম ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে ইরফান ও তার সঙ্গীদের বিরুদ্ধে।