শিক্ষার্থীদের আত্মবিশ্বাসী হতে বললেন ডিএমপি কমিশনার

Published: Sat, 15 Feb 2020 | Updated: Sat, 15 Feb 2020

অভিযাত্রা ডেস্ক: হতাশ না হয়ে আত্মবিশ্বাসী হতে শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানিয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, কখনো নিজের ওপর হতাশ হবে না, নিজের যোগ্যতাকে খাটো করে না দেখে আত্মবিশ্বাসী হয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। 

শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসা অনুষদের অধ্যাপক ড. হাবিবুল্লাহ কনফারেন্স লাউঞ্জে ঢাকা ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অব চুয়াডাঙ্গা (ডুসাক) কর্তৃক আয়োজিত মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদানের সময় এ কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার। 

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে কমিশনার বলেন, শিক্ষা জীবনে নিজেকে এমনভাবে তৈরি করবে যেন চাকরি তোমার পেছনে দৌঁড়াবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মেধার বিষয়ে কারও কোনো প্রশ্ন নেই। বর্তমানে বিসিএস ক্যাডারে শতকরা ৬০ ভাগের বেশি ঢাবির শিক্ষার্থী। যদি তোমার মধ্যে এই বিশ্বাস থাকে আমি পারব, তাহলে তোমাকে কেউ থামাতে পারবে না। তোমরা কখনো স্বাধীনতাবিরোধী প্রতিক্রিয়াশীল শক্তির খপ্পরে পড়বে না। 

বাংলাদেশ পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের অতিরিক্ত আইজিপি মীর শহিদুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমাদের মাঝ থেকে ভবিষৎ রাজনীতিবিদ ও সরকারি কর্মকর্তা বেরিয়ে আসবে। নিজেকে এমনভাবে তৈরি করবে যাতে তোমাকে নিয়ে সবাই গর্ব করে। সব সময় মাদক ও জঙ্গিবাদ থেকে নিজেকে ও বন্ধুদের দূরে রাখবে। যারা শিক্ষাবৃত্তির আয়োজন করেছেন তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ। 

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ডুসাকের শিক্ষাবৃত্তিতে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ এমপি, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সাংসদ হাজী মো. আলী আজগর টগর, ডুসাকের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সাংবাদিক আহমেদ পিপুল, সংগঠনের সভাপতি নাজমুল হোসাইন। 

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি নিজেদেরকে আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলবেন। সেই চরিত্র দিয়ে বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে প্রতিনিধিত্ব করবেন। একজন আদর্শ মানুষ হওয়ার জন্য দেশের প্রতি কমিটমেন্ট থাকতে হবে। সেজন্য সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। জাতির পিতার আদর্শকে ধারণ করতে হবে। তা না হলে প্রকৃত মানুষ হিসেবে দাবি করতে পারবো না। 

ডুসাক প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রায় ২০ বছর যাবৎ চুয়াডাঙ্গা জেলার মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করছে। ২০২০ সালে ৫০ জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে এককালীন শিক্ষাবৃত্তি দেয়া হয়। এছাড়াও ৫ জন মেধাবী আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীকে শিক্ষাজীবনের শেষ পর্যন্ত মাসিক বৃত্তির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আইআর /