করোনা মোকাবেলায় চিকিৎসকের পাশে ইবির সাবেক শিক্ষার্থী

Published: Wed, 25 Mar 2020 | Updated: Wed, 25 Mar 2020

ইবি সংবাদদাতা : বিশ্বে নতুন আতঙ্ক এখন করোনা ভাইরাস। যা বিদ্যুতের গতিতে ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। এখন পর্যন্ত চার লাখেরও বেশি মানুষ এ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন প্রায় ১৯ হাজার। বাংলাদেশে এ ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়েছে গত ৮ মার্চ। এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে চার জনের আর আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৩৯ জনে। দিন দিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। আর এদের চিকিৎসা পেতেও পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি। 

তবে করোনা রোগীদের সেবা-শুশ্রুসায় নিয়োজিত ডাক্তার-নার্সরা সবথেকে বেশি করোনা ঝুঁকিতে রয়েছে। তাদের নেই পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা বা পিপিই (পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট)।

এবার ডাক্তারদের নিরাপত্তার কথা ভেবে ১০ হাজারেরও বেশি পিপিই নিয়ে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) সাবেক এক শিক্ষার্থী। তিনি বিনামূল্যে বিতরণের জন্য নিজের কারখানায় প্রস্তুত করেছেন এসব পিপিই।

জানা যায়, বিনামূল্যে পিপিই বিতরণ করা ঐ শিক্ষার্থীর নাম মোহাম্মাদ মহসিন। তিনি ইবির ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভূক্ত ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ১৯৮৬-৮৭ শিক্ষাবর্ষের সাবেক শিক্ষার্থী। লেখাপড়া শেষে তিনি ব্যবসায়িক কার্যক্রমে জড়িয়ে পড়েন। বর্তমানে তিনি 'রোমো ফ্যাশন ট্যুডে লিমিডেট' নামক একটি গার্মেন্টস শিল্পের চেয়ারম্যান। 

জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে মানবতার সেবায় নিয়োজিত মোহাম্মাদ মহসিন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় এ্যালামনাই এ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি ও ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্ট এ্যালামনাই এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মোহাম্মাদ মহসিন বলেন, ‘দেশের এই দুর্যোগপূর্ন মুহূর্তে ডাক্তারদের ভূমিকা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের সীমিত স্বার্থে রাষ্ট্রীয়ভাবে এটির (পিপিই) সম্পূর্ন সাপোর্ট দেয়া সম্ভব না। তাই ব্যক্তি উদ্যোগে আমাদের সামর্থ অনুযায়ী ডাক্তার-নার্সদের পাশে দাঁড়ানো উচিত। আমার ক্ষুদ্র সামর্থ অনুসারে যতটুকু সম্ভব করেছি, স্বাস্থকর্মীদের পাশে দাঁড়িয়েছি।’

আইআর /