কলারোয়ায় অগ্নিদগ্ধ তিন বছরের শিশুর মানবেতর জীবনযাপন

Published: Tue, 23 Jun 2020 | Updated: Tue, 23 Jun 2020

ফারুক রাজ, সাতক্ষীরা : খেলা করতে গিয়ে বাড়ির আঙিনায় ধান সিদ্ধ করা গরম ( উনুন) চুলায় পড়ে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে সাতক্ষীরার কলারোয়ার তিন বছরের আব্দুর রহমান নামে এক শিশু৷ সে উপজেলার বাকসা তাতীপাড়া গ্রামের দিন মজুর জামাল গাজীর ছেলে।

শিশুটির মা রেক্সনা বেগম জানান, গত দুসপ্তাহ আগে খেলতে গিয়ে বাড়ির আঙিনায় ধান সিদ্ধ করা গরম চুলায় (উনুনে) পড়ে  মারাত্মক ভাবে অগ্নিদগ্ধ হয় ছেলে  আব্দুর রহমান। তাৎক্ষণিক পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে  জখম অবস্থায় শিশুটিকে কলারোয়া  উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। কর্তব্যরত ডাক্তার শিশুর অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে রেফার করেন। 

সেখানে ভর্তি হয়ে দুইদিন চিকিৎসা নেওয়ার পরে রোগীর অবস্থার তেমন উন্নত না হওয়ায় তার অবনতি ঘটতে থাকে একপর্যায়ে হাসপাতাল চিকিৎসক তাকে খুলনা মেডিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য  রেফার করে। খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে ৭ দিন চিকিৎসা নেওয়ার পর শিশুটি আশংকা মুক্ত হলেও সেখান থেকে আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য অগ্নিদগ্ধ শিশু আব্দুর রহমানকে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

শিশুটির দিনমজুর বাবা জামাল গাজী জানান, অগ্নিদগ্ধ  ছেলেকে সুস্থ করার জন্য শেষ সম্বল গরু ছাগল সব  বিক্রি ও ধারকর্য করে লক্ষাধিক টাকা ইতিমধ্যে খরচ করেছি। আমার এখন আর সামার্থ নেই ছেলেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার মতো । ডাক্তার বাবু বলেছে ছেলেকে ঢাকায় না নিলে ওর দুহাত পঙ্গু হতে পারে।

অশ্রুসিক্ত কন্ঠে তিনি সকলের নিকট সহযোগিতা কামনা করে বলেন, অবুঝ নিষ্পাপ শিশুটির সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনসহ সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানাচ্ছি।

আইআর /