ভোলায় সংবাদকর্মীকে পেটানো চেয়ারম্যান পুত্র নাবিল আটক

Published: Wed, 01 Apr 2020 | Updated: Wed, 01 Apr 2020

ভোলা সংবাদদাতা : ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় সংবাদকর্মী সাগর চৌধুরীকে ফোন করে ডেকে এনে মোবাইল চুরি ও ছিনতাইয়ের অপবাদে দিয়ে পেটানো সেই নাবিল হায়দারকে আটক  করেছে পুলিশ। বুধবার(১এপ্রিল) দুপুরে নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়েছে বলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (লালমোহন সার্কেল) মো. রাসেলুর রহমান নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃত নাবিল হায়দার ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার আ:লীগের সভাপতি ও বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দারের ছোট ছেলে।

আহত সংবাদকর্মী সাগর চৌধুরী জানান, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি ও বড় মানিকা ইউনিয়নের সরকারি নিবন্ধিত জেলেদের নামে বরাদ্দকৃত চাল ৪০ কেজি করে বিতরণের কথা থাকলেও ঔ ইউনিয়নে দেয়া হয়েছে ১৫/২০ কেজি করে। এ ঘটনা আমি বোরহানউদ্দিন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বশির গাজীকে জানাই। 

সাগর চৌধুরী বলেন, এছাড়া রাতের আঁধারে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে চাল অন্য স্থানে সরিয়ে নেয়ার সময় আমি ছবি তুলি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যানের ছোট ছেলে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে আমাকে ফোন করে জরুরি কথা বলার জন্য রাজমনি সিনেমা হলের সামনে আসতে বলে। আমি গেলেই সে আমার জামার কলার ধরে পেটানো শুরু করে। 

তিনি আরও বলেন, আমি নাকি তার মোবাইল ফোন চুরি ও ছিনতাই করার চেষ্টা করছি এটা বলে আরও মারধর করে। আমাকে মারধর করা অবস্থায় চোর বলে ফেসবেুক সে লাইভ করে। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে। পরে আমার পরিবারের সদস্যদের সহযোগিতায় ভোলা সদর হাসপাতলে আমাকে ভর্তি করা হয়।

বোরহানউদ্দিন থানার ওসি মো. এনামুল হক জানান, সংবাদকর্মী সাগর চৌধুরী মঙ্গলবার রাতে বোরহানউদ্দিন থানায় নাবিলকে প্রধান আসামি  ও আরো ৫ জনকে অজ্ঞাত করে একটি মামলা দায়ের করেন।

আইআর /