২ মাস হলো আকাশের নিচে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৩ পরিবার

Published: Sun, 27 Sep 2020 | Updated: Sun, 27 Sep 2020

মো. জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালী : নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ৩নং ডমুরুয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড কানুরচরে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৩টি পরিবার বিগত দুইমাস যাবত খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছে। অর্থের অভাবে বসতঘর নির্মাণ করতে না পেরে একটি কুঁড়েঘরের মধ্যে পরিবারের ১৫ সদস্য নিয়ে রাত কাটাচ্ছে। অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও স্থানীয় এলাকাবাসীর দাবি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেন নিরীহ ওই পরিবারটিকে মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দেন।

অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ইউসুফ আলী ও রিনা বেগম জানান, গত কোরবানির ঈদের আগের দিন ৩১ আগস্ট গভীর রাতে আমাদের বসতঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তিনটি বসতঘর পুড়ে সম্পূর্ণ ছাই হয়ে যায়। ওই অগ্নিকাণ্ডে আমাদের টাকা-পয়সা, স্বর্ণালঙ্কার, আসবাবপত্র, ধান, চাল পুড়ে যায়। 

পরে স্থানীয় এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পুড়ে যাওয়া টিন দিয়ে একটি খুপরি ঘর তৈরি করে ওই ঘরে গাদাগাদি করে পরিবারের ১৫ সদস্য বসবাস করছে। গত ২৪ সেপ্টেম্বর সেনবাগ উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে তিন পরিবারকে ১০ হাজার টাকা করে ৩০ হাজার টাকা অনুদান দিলেও তাদের ঘর নির্মাণ করার মতো যৎসামথ্য না থাকায় ওই খুপরি ঘরেই মানবেতর জীবন যাপন করছে।

ডমুরুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইয়াছিন কন্ট্রাক্টর অসহায় পরিবারটি তিনটি ঘর নির্মাণ করে দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট জোর দাবি জানান। ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সেক্রেটারি মো. সোলাইমান বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছে কেউ গৃহহীন থাকবে না। তাই জোর দাবি জানাই, প্রধানমন্ত্রী যেন অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে ঘরের ব্যবস্থা করে দেন।

ডমুরুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাখাওয়াত হোসেনের দাবি, পরিষদের পক্ষ থেকে ৩০ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছে, তা অপ্রতুল। ওই টাকা দিয়ে তারা খাবে নাকি ঘর করার জন্য কাঠ-বাঁশ কিনবে। তাই প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের নিকট দাবি জানাই, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ওই পরিবারটিকে অন্ততঃ একটি ঘর নির্মাণ করে দেয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম মজুমদার জানান, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটিকে ইতোমধ্যে পরিষদের পক্ষ থেকে ৩০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। আমি খোঁজ নিয়ে দেখেছি, তারা খোলা আকাশের নিছে মানবেতন জীবন যাপন করছেন। তাই তাদের ঘর করার টিনের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে। শিগ্রই একটি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে আশা করছি।

ও/ডব্লিউইউ